কানাডার স্থায়ী বাসিন্দারা এখন আরও সহজে আত্নীয় স্বজনদের কানাডায় নিয়ে যেতে পারবেন

করোনা মহামারি পরবর্তী শ্রমিক সংকট কাটাতে নতুন পদক্ষেপ নিয়েছে কানাডা সরকার। ফলে যারা দেশটিতে স্থায়ী বাসিন্দা হিসেবে বসবাস করছিলেন, তারা চাইলে এখন পরিবারের সদস্যদেরও কানাডযায় নিয়ে যেতে পারবেন। স্থায়ীভাবে বসবাসরত বাসিন্দাদের পরিবারের সদস্যদের জন্য ওপেন ওয়ার্ক পারমিট দেবে কানাডা সরকার। 

একই সঙ্গে সাময়িক ভিসা প্রাপ্তির প্রক্রিয়াকে আরও দ্রুততর করারও ঘোষণা দিয়েছেন কানাডার অভিবাসন, শরণার্থী ও নাগরিকত্ববিষয়ক মন্ত্রী শন ফ্রেজার। এখন থেকে স্থায়ী বাসিন্দাদের পরিবারের সদস্যদের ভিসা আবেদন আরও সহানুভূতির সঙ্গে বিবেবচনা করবে কানাডার সরকার।  

নতুন ঘোষণায় আরও যা যা থাকছে তা হলো:

–  স্বামী/স্ত্রী বা পরিবারের সদস্যদের জন্য নতুন ওপেন ওয়ার্ক পারমিট

– চলতি বছরের ১ আগস্ট থেকে বছরের শেষ ভাগের মধ্যে যাঁদের ওপেন ওয়ার্ক পারমিটের মেয়াদ শেষ হবে, তাঁদের জন্য মেয়াদ বৃদ্ধি

–  স্থায়ীভাবে বসবাসরত ব্যক্তিদের স্বামী/স্ত্রীদের দ্রুত সাময়িক বসবাসের ভিসা (টিআরভি) দেওয়া।

–  এই ভিসা প্রক্রিয়াকরণে নতুন ও সুনির্দিষ্ট ব্যবস্থা গ্রহণ

কানাডার অভিবাসন, শরণার্থী ও নাগরিকত্ববিষয়ক সংস্থা আইআরসিসি এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘এখন থেকে ৩০ দিনের মধ্যে এসব আবেদন প্রক্রিয়াকরণ করা হবে; স্থায়ীভাবে বসবাসরত ব্যক্তিদের স্বামী/স্ত্রী বা তাঁদের ওপর নির্ভরশীল ব্যক্তিদের পরিস্থিতি বিবেচনা করে এটা করা হবে, ফলে তাঁরা উপকৃত হবেন। নতুন এই প্রক্রিয়ায় এখন পর্যন্ত বেশ কিছু আবেদন অনুমোদিত হয়েছে। এই শ্রেণিতে আবেদন অনুমোদনের হার ৯৩ শতাংশ।’

যাঁরা কানাডায় সাময়িক বসবাসের অনুমতি নিয়ে বসবাস করছেন, তাঁদের স্বামী/স্ত্রী ও তাঁদের ওপর নির্ভরশীল সন্তানদের জন্য কাজের অনুমতি দেবে কানাডা সরকার। এখন অবশ্য এই শ্রেণির মানুষেরা স্থায়ীভাবে বসবাসের অনুমতির আবেদন জমা দেওয়ার পর কাজের অনুমতি পান।

করোনা মহামারির পর থেকে কর্মীসংকট মোকাবিলায় কানাডা সরকার বেশ কিছু পদক্ষেপ নিয়েছে। সম্প্রতি দেশটি পর্যটন ভিসায় বেড়াতে যাওয়া মানুষদের কাজের অনুমতির মেয়াদ বাড়িয়েছে। ট্রুডো প্রশাসন আরও দুই বছরের জন্য এই মেয়াদ বাড়িয়েছে। অর্থাৎ পর্যটন ভিসায় যাঁরা কানাডায় অবস্থান করছেন, তাঁরা আরও দুই বছর সে দেশে কাজ করতে পারবেন।

এ ছাড়া পর্যটন ভিসা নিয়ে গত ১২ মাস যাঁদের কাজ করার অনুমতি ছিল, তাঁরাও আবার আবেদন করতে পারবেন।

এর আগে গত বছরের অক্টোবর মাসে কানাডায় অধ্যয়নরত বিদেশি শিক্ষার্থীদের কর্মঘণ্টার সময়সীমা তুলে নেওয়া হয়েছে।

এত দিন বিদেশি শিক্ষার্থীরা সপ্তাহে ২০ ঘণ্টা কাজের অনুমতি পেতেন। নতুন নিয়ম অনুযায়ী মাধ্যমিক–পরবর্তী পর্যায়ের শিক্ষার্থীরা গত বছরের ১৫ নভেম্বর থেকে ইচ্ছেমতো কাজের সুযোগ পাচ্ছেন। প্রাথমিকভাবে ২০২৩ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত এর মেয়াদ থাকবে, এরপর তা স্থায়ী করা হবে কি না, সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে কানাডা সরকার।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *