আন্তঃব্যাংক লেনদেনে ডলারের দাম বেড়ে ১০৮.৭৫ টাকা

আন্তঃব্যাংক লেনদেনে প্রতি ডলারের দাম ১০৮ টাকা ৫০ পয়সা থেকে বেড়ে ১০৮ টাকা ৭৫ পয়সা পর্যন্ত হয়েছে, যা দেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ।

যে দরে একটি ব্যাংক অন্য ব্যাংকের কাছে ডলার বিক্রি করে তাকে আন্তঃব্যাংক বিনিময় হার বলে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, সোমবার (২২ মে) আমেরিকান মুদ্রা ডলার সর্বনিম্ন ১০৮ টাকা ৫০ পয়সা এবং সর্বোচ্চ ১০৮ টাকা ৭৫ পয়সা দামে বিক্রি হয়েছে।

এর আগে ১৫ মে আন্তঃব্যাংক লেনদেনে ডলারের দাম ১০৮ টাকা ৫০ পয়সায় উঠেছিল, যা সোমবার পর্যন্ত এ বাজারে ডলারের সর্বোচ্চ দাম ছিল।

গত ৭ মে আন্তঃব্যাংক লেনদেনে ডলারের দাম বেড়ে ১০৮ টাকায় দাঁড়িয়েছিল।

ব্যাংকাররা জানান, রেমিট্যান্সে ডলারের দাম বৃদ্ধির কারণেই মূলত আন্তঃব্যাংক লেনদেনে ডলারের দর বেড়েছে।

গত ৩০ এপ্রিল অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স বাংলাদেশ (এবিবি) এবং বাংলাদেশ ফরেন এক্সচেঞ্জ ডিলার্স অ্যাসোসিয়েশন (বাফেদা) রেমিট্যান্সের ক্ষেত্রে ডলারের দাম ১ টাকা বাড়িয়ে ১০৮ টাকা করে।

এর আগে প্রায় ছয় মাস রেমিট্যান্সের ক্ষেত্রে ডলারের দাম ছিল ১০৭ টাকা, যদিও মার্চে বেশ কয়েকটি ব্যাংক বেশি দামে রেমিট্যান্স এনেছে।

গত বছরের সেপ্টেম্বর থেকেই ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালকদের দুই সংগঠন এবিবি ও বাফেদা রপ্তানি আয় ও রেমিট্যান্সের ডলারের দাম নির্ধারণ করে দিচ্ছে।

সৌজন্যে: টিবিএস

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *