Politics

AMM.Sawkat.Ali's picture

আসন্ন নির্বাচনের চলমান ঘটনাপ্রবাহ

প্রাথমিক পর্যায়ে নির্বাচনী প্রচারণা কিছুটা হলেও জোরদার করেছিল ১৪ দলীয় জোটের প্রধান দল। মূলত এ প্রচারণা শুরু হয় ক্ষমতাসীন প্রধানমন্ত্রীর বিভিন্ন জেলায় একের পর এক জনসভায়। এর সঙ্গে ছিল হাজারো প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন বা উদ্বোধন। এ প্রচারণার গতি ও আকার বৃদ্ধির আগেই প্রথমে কিছুটা, পরে একেবারেই থেমে যায়। এই পর্যায়ে প্রধান বিরোধী জোট আসন্ন নির্বাচনকে একতরফা নির্বাচন বলে আখ্যায়িত করে নির্বাচন বর্জনের সিদ্ধান্ত ঘোষণা করে। তাদের দাবি, ক্ষমতাসীন দল বা জোটের নেতৃত্বে কোনো নির্বাচন তারা মেনে নেবে না।

Munir.Hasan's picture

প্রবাসী-আয় বিনিয়োগে লাগুক

১৮ ডিসেম্বর বিশ্ব অভিবাসী দিবস বাংলাদেশেও পালিত হয়েছে। এ বছর বিদেশগামী কর্মীর সংখ্যা আশঙ্কাজনকভাবে হ্রাস পেয়েছে। গত বছরের ছয় লাখ আট হাজারের বিপরীতে এ বছর নভেম্বর মাস পর্যন্ত আমাদের বিদেশগামী কর্মীর সংখ্যা মাত্র তিন লাখ ৭১ হাজার। রেমিট্যান্স প্রবাহও ঋণাত্মক। ২০১২ সালে ৮০ লক্ষাধিক প্রবাসীর পাঠানো রেমিট্যান্সের পরিমাণ ছিল এক হাজার ৪১৬ কোটি ডলার। নভেম্বর পর্যন্ত চলতি বছরে এর পরিমাণ হলো এক হাজার ১৬৫ কোটি ডলার। (সূত্র www.bmet.gov.bd)। রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা আমাদের বৈদেশিক মুদ্রা আয়কারীদের একটি অংশকে প্রভাবিত করতে শুরু করেছে।

Maleka.Begum's picture

সাধারণ থেকে অসাধারণ ব্যক্তিত্বে উত্তরণ

জোহরা তাজউদ্দীন সশরীরে বাংলাদেশের আন্দোলনে-সংগ্রামে বিযুক্ত হয়ে গেলেন ২০ ডিসেম্বর, ২০১৩ থেকে। কিন্তু দীর্ঘ জীবনের (১৯৩২-২০১৩) রাজনৈতিক-মানবাধিকার-নারী আন্দোলন, স্বাধীনতাসংগ্রাম ও স্বাধীনতার পরবর্তী সময়ের গণতান্ত্রিক রাজনীতিতে সক্রিয়ভাবে যুক্ত থাকার গৌরবে তিনি স্মরণীয় থাকবেন বাংলাদেশের ইতিহাসে।
বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সময়ে (১৯৭১) পরিচালিত মুজিবনগর সরকারের প্রধানমন্ত্রী প্রয়াত তাজউদ্দীন আহমদ তাঁর স্বামী।

Mashiul.Alam's picture

কাদের মোল্লা, পাকিস্তান ও তালেবান

গণজাগরণ মঞ্চের বিক্ষোভকারীরা পাকিস্তান হাইকমিশনের কাছে যাওয়ার অনেক আগেই পুলিশ তাঁদের আটকে দিয়েছে। ভদ্রভাবে নয়, ‘বর্বরভাবে’ বলপ্রয়োগ করে। পুলিশের লাঠিপেটার শিকার নাগরিকদের খুবই মনে হতে পারে যে এই পুলিশ বুঝি স্বাধীন বাংলাদেশের পুলিশ নয়, মুক্তিযুদ্ধে নেতৃত্বদানকারী দল আওয়ামী লীগ সরকারের নিয়ন্ত্রিত পুলিশ বাহিনী নয়। এই পুলিশ যেন পাকিস্তানের পুলিশ।

syed shah salim ahmed's picture

রব,কাদের,মান্না,কামাল,বি চৌধুরী, সুলতান,ইউনুস-এখন কোথায় ?

সব সময় যারা পরিশুদ্ধ ও সংবেদনশীল রাজনীতি ও নতুন দিনের কথা জনগণকে শুনান, নতুন বার্তা জনমনে ছড়িয়ে দেয়ার উদগ্র বাসনা নিয়ে দিন রাত পত্রিকা, টক শো আর মিডিয়া অঙ্গন মাতিয়ে রাখেন, গনতন্ত্র ও উন্নত আদর্শ ও জীবনের কথা বলেন- সেই আ স ম আবদুর রব, মাহমুদুর রহমান মান্না, ডঃ কামাল হোসেন, নুরে আলম সিদ্দিকী, সারা বিশ্ব চষে বেড়ানো, বক্তৃতা দিয়ে সারা বিশ্বকে মাতিয়ে রাখা-সেই ডঃ মোহাম্মদ ইউনূস, ডাঃ বি চৌধুরী, সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমদ সহ হালের কলাম লেখক গোলাম মাওলা রনি, ব্যারিস্টার পার্থ, মাহি বি চৌধুরী, শিক্ষক ডঃ আসিফ নজরুল, সাংবাদিক টকশোর বক্তা নূরুল কবির, ইত্তেফাকের সাবেক সম্পাদক ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন, বয়োবৃদ্ধ বিবেক ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম, মোজাহিদুল ইসলাম সেলিম সহ আরো অনেকেই যারা জাতিকে সারাক্ষণ নসিহত করেন, নতুন নতুন নীতি বাক্য শুনান, নতুন দিনের কথা বলেন- তারা আজ কোথায় ? জাতি জানতে চায়, তাদের বক্তব্য।

Jatin.Sharkar's picture

বিজয়ের পরবর্তী সংস্কৃতি ও রাজনীতি

এবারের (২০১৩) 'বিজয় দিবস'কে উপলক্ষ করে সংস্কৃতি ও সাংস্কৃতিক আন্দোলনের বিষয়টিই বিশেষ করে স্মরণে আনছি। রাজনৈতিক সংগ্রাম তথা সশস্ত্র যুদ্ধ করেই আমরা বিজয় ছিনিয়ে এনেছি এবং একটি স্বাধীন রাষ্ট্রের পত্তন করেছি বটে, কিন্তু ভুলতে পারি না- সাংস্কৃতিক আন্দোলনই রাজনৈতিক সংগ্রামের দিকে আমাদের এগিয়ে নিয়ে গিয়েছিল।

Taslima.Nasreen's picture

ফাঁসিতে বিশ্বাসী দেশগুলো কাদের মোল্লার ফাঁসির সমালোচনা করছে কেন?

আমি ফাঁসিবিরোধী মানুষ। আমি মনে করি, প্রতিটি মানুষের বাঁচার অধিকার আছে। প্রতিটি যুদ্ধাপরাধীর বিচার হওয়া উচিত। ফাঁসির বদলে অন্য যে কোনো শাস্তি তারা পেতে পারে। যাবজ্জীবন? নয় কেন? অবশ্য আজকাল আমি যাবজ্জীবনেও আপত্তি করি। জেলখানা ব্যাপারটাকেই আমি পছন্দ করি না। জেলখানাগুলো হতে পারে সংশোধনী কেন্দ্র। যতদিন মাথা থেকে কুচুটে কীটগুলো বেরিয়ে যাচ্ছে, বা মরে যাচ্ছে, ততদিন অপরাধীরা থাকবে ওই কেন্দ্রে।

bishwajit.chowdhury's picture

যাদের হাতে ‘পরকালের পাসপোর্ট’

চট্টগ্রামের ১৬টি সংসদীয় আসনের সাতটিতে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন মহাজোটের প্রার্থীরা। ভোট ছাড়াই বিজয়ী হওয়ার এমন অভূতপূর্ব সুযোগ পেয়ে তাঁরা কতটা উচ্ছ্বসিত জানি না, কিন্তু এ অঞ্চলের ভোটাররা যে নির্বাচনী-উৎসবের উত্তাপবঞ্চিত হয়ে প্রচণ্ড হতাশ, তাতে সন্দেহ নেই। একদিকে এই হতাশা, অন্যদিকে এই জেলার কিছু কিছু অঞ্চলে জামায়াত-শিবিরের লাগামহীন তাণ্ডবের কারণে দিশেহারা সাধারণ মানুষ।

Ali.Riaz's picture

জনগণের ইচ্ছাতেই সুপার মেজরিটি?

সংসদীয় ব্যবস্থায় আইনসভার নির্বাচনে কোনো দল বা জোটের দুই-তৃতীয়াংশ আসন লাভের ঘটনার পর সেসব দেশের রাজনীতি ও শাসনব্যবস্থায় গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তনের ঘটনা ঘটেছে গত চার দশকে দক্ষিণ এশিয়ার চারটি দেশেই। বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কার ৩৫টি নির্বাচনের ভেতরে যে ১১টিতে বিজয়ী দল বা জোট দুই-তৃতীয়াংশ বা তার বেশি আসন পেয়েছে, সেখানে নির্বাচনের পর প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমতা বাড়ানো হয়েছে এবং তাঁদের আচরণে অগণতান্ত্রিক প্রবণতা লক্ষ করা গেছে।

Sohrab.Hassan's picture

জামায়াতের কাছে বিএনপির আত্মসমর্পণ?

জামায়াত নেতা কাদের মোল্লার ফাঁসি হয় গত বৃহস্পতিবার রাত ১০টা এক মিনিটে। কিন্তু আগের দিন থেকেই জামায়াত-শিবির তাণ্ডব চালাতে থাকে। পরদিন শুক্রবার বিরোধী জোট বা দলের কর্মসূচি ছিল না। কিন্তু রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে প্রলয় ঘটে যায়। গণমাধ্যম সাক্ষ্য দিচ্ছে: ‘গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের বিভিন্ন স্থানে জামায়াত ও তাদের ছাত্রসংগঠন ইসলামী ছাত্রশিবিরের নেতা-কর্মীদের তাণ্ডবে কমপক্ষে ছয়জন নিহত হয়েছেন।

Syndicate content