General

Amar Ami's picture

পুলিশ ও আমরা

10177409_768676053165204_2590061295531164890_n.jpg

আজ বাসে করে কারওয়ান বজার থেকে মালিবাগ আসছিলাম।পথিমধ্যে পুলিশ বাস আটকাল।বাস আটকানোর সাথে সাথে যাত্রীরা প্রায় সবা্ই মনে করল পুলিশ নিশ্চয় টাকা খাওয়ার ফন্দি আটছে।বাস থেকে যাত্রীরা পুলিশকে লক্ষ করে বলতে লাগল কত লাগবে কত???শুনে আমার মনে হচ্ছিল কোন খদ্দের যেন দর হাকাচ্ছেন।

Md. Galib Mehdi Khan's picture

র‍্যাব বিলুপ্তি নয়, নেতৃবৃন্দের চৈতন্যদয় জরুরী।

rab_3.jpg
র‍্যাব বিনা বিচারে মানুষ হত্যা করছে কাজেই এ বাহিনীটিকে বিলুপ্ত করা হোক! তাহলে পুলিশও তো বিনা বিচারে মানুষ হত্যা করছে সে ক্ষেত্রে কি পুলিশকেও বিলুপ্ত করতে হবে? আর যখন প্রধান রাজনৈতিক দলগুলো রাজনীতির নামে, দাবী আদায়ের নামে প্রকাশ্যে সন্ত্রাসী কার্যকলাপ চালায়? তাঁদের বেলায় কি করতে হবে? নাকি রাজনীতিবিদদের সাত খুন মাফ! এ দেশে অলিখিত নিয়ম তো তাই।

Md. Galib Mehdi Khan's picture

চলমান অপহরণ- গুম-খুন, কোন বিশেষ এজেন্ডা বাস্তবায়নের অংশ বা ভয়ঙ্কর ভবিষ্যতের আলামত নয় তো?

images.jpg
নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতুর কাজ শুরু। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দীপ্ত উচ্চারণ “আমরা এর কাজ শেষ করতে পারব” কিংবা গাইবান্ধা-চাঁদপুর নদীপথে টানেল নির্মাণের স্বপ্ন এসবই আমাদের স্বপ্নাতুর করে তোলে। করে গর্বিত। স্বপ্ন দেখায় একটি সমৃদ্ধ বাংলাদেশের। কিন্তু কোন স্মশানের উপর দাঁড়িয়ে নিশ্চয়ই সে সমৃদ্ধি কাম্য নয়?

Rita Roy Mithu's picture

বঙ্গবন্ধুকে ভালোবাসি তাই

বলেছিলাম, ৫ই জানুয়ারীর নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়ে যাওয়ার পর আমি সহজে ফেসবুকে বা পত্রপত্রিকায় রাজনৈতিক স্ট্যাটাস লিখবোনা, যদি না তা মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক হয়। কারণ আমি রাজনীতির কিছুই বুঝিনা, শুধুমাত্র বিবেকের তাড়নায় এতদিন মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে স্ট্যাটাস লিখে গেছি। বিনিময়ে চেনা-অচেনা বন্ধুদের কাছ থেকে স্নেহ, ভালোবাসা, শ্রদ্ধা পেয়েছি, কিছু কিছু মানুষের কাছ থেকে গাল-মন্দ, ঘৃণা, কটু-কাটব্যও কম পাইনি। একেকটি নোংরা কমেন্ট পড়ে কিছুক্ষণ স্তব্ধ হয়ে থেকেছি, পরক্ষণেই নোংরা গা থেকে ঝেড়ে ফেলেছি।

muzib's picture

বাংলাদেশের ট্রাফিক ব্যবস্থাপনাঃ অনিয়ম ও প্রতিকার (তৃতীয় পর্ব)

তৃতীয় পর্ব উপস্থাপনের শুরুতেই আমার পাঠকদের প্রতি অফুরন্ত কৃতজ্ঞতা ও অভিনন্দন। আপনারা ধৈর্য ধরে পূর্বেকার দু’টি পর্ব পড়ে থাকলে তৃতীয় পর্ব পাঠে সম্যক উপলব্ধি করতে পারবেন যে বর্ণীত তিন পর্বে সমাপ্য লেখায় আমি কি বিষয়বস্তু তুলে ধরতে চেয়েছি। এবার আর ভূমিকা নয়; সরাসরি আলোচনায় আসি। অসমাপ্ত সমস্যাগুলো আলোচনা পূর্বক সম্ভাব্য সমাধানের পথগুলো খুঁজে দেখিঃ

Rita Roy Mithu's picture

"আক্কেল সেলামী"

যতটুকু মনে পড়ে, বাগধারা 'আক্কেল সেলামী'র সরল অর্থ হচ্ছে 'বোকামীর দন্ড', অর্থাৎ বোকামীর সাজা। বাংলাদেশ, ভারত, নেপাল সফর শেষে আমেরিকার মাটিতে পা দেয়ামাত্র আমাকেও সেই আক্কেল সেলামীই দিতে হলো। এমনটা ঘটবার কথা ছিলনা, তবুও ঘটেছে যখন, তখন এটাকে ভদ্র ভাষায় বোকামীর দন্ড ছাড়া এই মুহূর্তে আর কিছু ভাবতে ইচ্ছে করছেনা।

muzib's picture

বাংলাদেশের ট্রাফিক ব্যবস্থাপনাঃ অনিয়ম ও প্রতিকার (দ্বিতীয় পর্ব)

পাঠকবৃন্দের নিশ্চয় মনে আছে গত ১৭ এপ্রিল ২০১৪ ‘বাংলাদেশের ট্রাফিক ব্যবস্থাপনাঃ অনিয়ম ও প্রতিকার’ শির্ষক প্রবন্ধের প্রথম পর্বে কিছু সমস্যার কথা তুলে ধরেছিলাম। সহৃদয় পাঠকের ধৈর্যচ্যূতি ঘটতে পারে বিবেচনা করে তখন বিস্তারিত আলোচনায় যাইনি। তাই সেদিন যে বিষয়গুলো পরিস্কার করতে পারিনি আজ সেগুলো একটু বিস্তারিত ভাবে তুলে ধরতে চেষ্টা করছি। আমাদের আর্থ-সামাজিক অবস্থার প্রেক্ষিতে সড়ক ব্যবস্থাপনা বা রোড ট্রাফিকিং এর অন্তরায়সমূহকে চিহ্নিত করণ ও তার সমাধানের বিষয়ে এবার বিস্তৃত আলোচনাটি পড়ৃনঃ

Md. Galib Mehdi Khan's picture

আজ যে ভাবে গুম এবং গুপ্তহত্যা চলছে তাতে কাল যে আমি এর স্বীকার হব না সে নিশ্চয়তা কে দিবে?

P1_rokkhibahinir-nrishongsh-26fbde4b75310a383237d68f1aaa00de-250x250-75-nocrop.jpg২২ অক্টোবর ২০১৩ প্রকাশিত প্রথম আলোর “বন্ধ হয়নি ক্রসফায়ার, উৎকণ্ঠা ছড়ায় গুম” শীর্ষক একটি রিপোর্টে পুলিশ সদর দপ্তরের সূত্র অনুযায়ী বলা হচ্ছে ২০০২ থেকে ২০০৬ পর্যন্ত সময়ের সাথে ২০০৯ থেকে ২০১২ পর্যন্ত সময়ের আইন শৃঙ্খলার একটি তুলনামূলক চিত্রে দেখান হয়েছে-
চার হাজার ৩৮৮টি ডাকাতির মামলার স্থানে ডাকাতি মামলা হয়েছে দুই হাজার ৬৬৩টি একই সময়ে অস্ত্র মামলা হয়েছে ১১ হাজার ১১১টির স্থানে ৬৮০টি।

muzib's picture

বাংলাদেশের ট্রাফিক ব্যবস্থাপনাঃ অনিয়ম ও প্রতিকার (প্রথম পর্ব)

ব্যক্তির সমষ্টিই সমাজ। আমি সেই সমাজেরই অংশ। যে সমাজে বাস করছি সেই সমাজের উন্নয়ন আমার স্বপ্ন। সমাজের যেকোন অনিয়ম অসংগতি আমাকে খুব কষ্ট দেয়। ইচ্ছা হয়; সুযোগ পেলে সমাজটাকে বদলিয়ে একটা সুন্দর সমাজ গড়ে তুলি। সমাজের প্রতি সেই দায়বদ্ধতা থেকেই নিজের কিছু ইচ্ছা, অভিপ্রায় ও মতামত উপস্থাপন করে সমমনা পাঠকেদের সাথে তা শেয়ার করার মানসে মাঝে মাঝে কিছু লিখি। তাতে সমাজের সামান্যতম উপকার হলেও নিজেকে ধন্য মনে করি। আমার এই লেখা যাদের নজরে এলে আর তা আমলে নিয়ে সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করলে দেশ ও সমাজের উপকার হতে পারে, জানি না তাদের কেউ এ লেখা পড়বেন কি না। আর পড়লেও তা আমলে আনবেন কি না। তবু আমার পাঠকদের সাথে শেয়ার করার মানসেই এই নিবন্ধের অবতারণা।

muzib's picture

বাংলা-লঙ্কার রাবণদের ইতিকথাঃ

সভ্য স্বাধীন দেশে মত প্রকাশের স্বাধীনতা সবারই আছে। বেশীরভাগ মানুষের মতামতই নির্ভর করে ব্যক্তি মানুষের নিজস্ব জ্ঞান মেধা রুচি শিক্ষা অভিজ্ঞতা ও দর্শণের ভিত্তিতে। কেউ আবার দর্শণের কাছে বেশী মাত্রায় পরাভূত। ব্যক্তির নিরপেক্ষ জ্ঞান যখন অনেকাংশেই লোপ পায় তখনই তার চিন্তা চেতনা একপেশে হতে বাধ্য। আর তখনই হয়তো একজনকে একটা বিশেষ ঘরাণার মানুষ বলে ভাবা হয়ে থাকে। একজনের চিন্তা চেতনা বা মতামত অভিব্যক্তি যে সবার কাছে সমানভাবে সমাদৃত হবে তেমন কোন কথা নেই। তাই বলে তার চেতনা বা মতামতকে অবজ্ঞা করাও সুস্থ্যতার পরিচায়ক নয়?

Syndicate content