Mostafa.Hussain's blog

Mostafa.Hussain's picture

তবু জামায়াত কেন নিষিদ্ধ হবে না?

'এই দেশ সেই দেশ, কাদের মোল্লার বাংলাদেশ; শহীদ কাদের মোল্লার রক্ত, আমাদের ধমনিতে; এই রক্ত কোনো দিন বৃথা যেতে দেব না। গণজাগরণ মঞ্চের আস্তানা, জ্বালিয়ে দাও পুড়িয়ে দাও।'

এই স্লোগান উচ্চারিত হয়েছে রাজশাহীতে বৃহস্পতিবার, বিএনপি নেতা মিজানুর রহমান মিনুর নেতৃত্বে পরিচালিত ১৮ দলীয় জোটের মিছিল থেকে। মিজানুর রহমান মিনু সমর্থন করেছেন জামায়াতিদের ওই স্লোগান।

Mostafa.Hussain's picture

কেন মায়ের আর্তনাদ সন্তানের আহাজারি

মা মাথা কুটে মরছেন। বাবার কোলে বোমায় আহত সন্তান। কালের কণ্ঠে ছাপা বক্স নিউজের জোড়া ছবির একটি। হাসপাতালগামী ওরা। নিচের ছবিতে শুয়ে থাকা লোকমান। অসংখ্য জিজ্ঞাসা তার চোখে। কী দোষ ১১ ও ১০ বছরের এই দুই শিশুর? তাদের হাত উড়িয়ে দিয়ে কারা জনহিতকর (!) রাজনীতি প্রতিষ্ঠা করবে বাংলাদেশে? ওদের তো খেলার বয়স।

Mostafa.Hussain's picture

প্রস্তাবিত শিক্ষা আইন ২০১৩ কতটা বাস্তবসম্মত

থমথমে ভাব। শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কক্ষে বসে আছেন কয়েকজন অভিভাবক। হালকা আওয়াজ হচ্ছে শীতাতপ নিয়ন্ত্রণযন্ত্রের। মাঝেমধ্যে ম্যাগাজিনের পাতা ওল্টানোর শব্দও কানে বাজে। ঘড়ির কাঁটা ৫টা বাজতেই অভিভাবকরা বেরিয়ে যেতে উদ্যত হন। বাইরে, দরজার সামনে জনাপঞ্চাশেক শিক্ষার্থী মিলিত হয় অভিভাবকদের সঙ্গে। বোঝা যায়, তারাও বেরিয়ে এসেছে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কক্ষ থেকেই।

এটি একজন কলেজশিক্ষকের বাসা কাম শিক্ষাদানকেন্দ্রের চিত্র। অথচ এটা কোনো স্কুল নয়, কলেজও নয়। সেখানে আছেন বেতনভুক্ত কর্মচারী। তাঁরা ওই শিক্ষককে সহযোগিতা করেন মাসিক সাড়ে ৮ থেকে ৯ লাখ টাকা আয় করতে। এটি রাজধানীর একটি দৃশ্য। ব্যাচের পর ব্যাচ শিক্ষার্থীরা আসছে, পড়ছে আর যাচ্ছে। তাদের সবাই কোনো না কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী। এই অভিজ্ঞতাটা কিছুদিন আগের।

Mostafa.Hussain's picture

বিপর্যয়ের মুখোমুখি জেএসসি পরীক্ষার্থীরা

অনিশ্চয়তা, উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার মধ্যে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে জেএসসি পরীক্ষা। পরীক্ষার্থীদের দিন কাটছে প্রবল স্রোতের বিপরীতে সাঁতার কাটার মতো অবস্থায়। আগামী ৪ নভেম্বর অনুষ্ঠেয় পরীক্ষার জন্য তাদের পাঠক্রম শেষ হয়ে যাওয়ার কথা অনেক আগেই। কিন্তু বাস্তবতা হচ্ছে, স্কুলগুলো সিলেবাস অনুযায়ী পাঠদান শেষ করতে পারেনি। শিক্ষকরা শুরু থেকেই আঁচ করতে পারছিলেন, মাত্র ১০ মাসের প্রস্তুতির এই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে পরীক্ষার্থীদের সামনে আগুনের দেয়াল তৈরি করার মাধ্যমে। শিক্ষক পরীক্ষার্থীদের পথনির্দেশনা দেওয়া দূরের কথা, নিজেরাই বুঝতে পারছিলেন না, কিভাবে পড়াবেন কিংবা কোনো বিষয়ের নম্বর বিন্যাসই বা কিভাবে হবে।

Mostafa.Hussain's picture

কওমি মাদ্রাসা শিক্ষা সংস্কার হবে কি

কোন দিকে যাচ্ছে বাংলাদেশ? 'আনসারুল্লাহ বাংলা টিম'-এর প্রধান মুফতি জসীমউদ্দীন রাহমানীর গ্রেপ্তার-পরবর্তী কিছু তথ্য সংবাদমাধ্যমে প্রকাশের পর মনে হচ্ছে, বাংলাভাইদের উত্তরাধিকার সৃষ্টির পথ বন্ধ হয়নি। সর্বশেষ হরকাতুল জিহাদের (হুজি) প্রধান প্রশিক্ষক মশিউর রহমান ওরফে মিলন তালুকদারের তৎপরতা সম্পর্কে খবর প্রকাশ ও তাঁকে গ্রেপ্তারের পর সন্দেহটা আরো ঘনীভূত হচ্ছে। আশঙ্কার বিষয়, এই পথ সম্প্রসারণের মূল জায়গায় প্রবেশের কার্যকর প্রচেষ্টাও লক্ষ করা যাচ্ছে না। শায়খ আবদুর রহমান কিংবা বাংলাভাই, সর্বশেষ রাহমানীর মতো কিছু লোককে শাস্তি দেওয়ার মাধ্যমেই এই বীজ বপন বন্ধ হবে- এমনটা বলার কোনো সুযোগ নেই। যতক্ষণ পর্যন্ত মূল জায়গাটা সিলগালা না করা যাবে, ততক্ষণ বাংলাভাইদের জন্ম হতেই থাকবে।

Mostafa.Hussain's picture

খুনি-সন্ত্রাসীরা নেতার কাতারে যায় কিভাবে

কাকের মাংস কাক খায় না। কিন্তু মাঝেমধ্যে মানুষ মানুষের মাংস খেয়ে কাক নামক কালো পাখিকেও লজ্জায় ফেলে। অন্তত সোমবার দিবাগত রাতে রাজধানীর অভিজাতপাড়ার একটি শপিং মলের সামনে যুবলীগ নেতা রিয়াজুল হক মিল্কির নৃশংসভাবে খুন হওয়া দেখে তাই মনে হতে পারে।

Mostafa.Hussain's picture

'দীপ নিভে যায়'

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে বসে আছে ছেলে। হঠাৎ চিৎকার। মাকে ডাকছে। বুয়েটে তার ইয়ারমেট এক ছাত্রী শাম্মা নাসরীন প্রেসক্লাবের সামনে বাসের ধাক্কায় গুরুতর আহত। বন্ধুরা স্ট্যাটাস দিয়েছে, রক্ত প্রয়োজন। সহপাঠী হিসেবে ছেলের উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা স্বাভাবিক। কিন্তু রক্ত হিম হয়ে গিয়েছিল শ্রোতা মা-বাবা দুজনেরই। সম্পূর্ণ অচেনা, এমনকি যার নামও কোনো দিন শুনিনি, সেই মেয়েটি আমার মেয়ে হয়ে যায়। খুব সম্ভব 'ও নেগেটিভ' ছিল রক্তের গ্রুপ। সঙ্গে সঙ্গে কয়েকজনকে ফোন করে অনুরোধ করে সাড়া পাওয়া যায়।

Mostafa.Hussain's picture

যন্ত্রণার ডেমু ও রেলওয়ের দুর্গতি

অনেক নামডাক তাঁর। শিক্ষক হিসেবেও জুরি নেই। সব মা-বাবা চান তাঁদের ছেলে যেন ওই হুজুরের কাছ থেকেই শিক্ষাজীবন শুরু করে। তো সেই হুজুরের ঘরে ছিল দ্বিতীয় পক্ষের স্ত্রী। ছিল মা মরা একটি সন্তানও। হুজুর মক্তবে সফল হলেও ঘরটা ছিল অগোছালো। সৎমা ছেলেকে দেখতে পারত না। ছেলেটাও ছিল দুষ্টের শিরোমণি। তার পরও হুজুরের কাছে সবাই ছেলেদের পাঠাত প্রাথমিক শিক্ষা নেওয়ার জন্য। হুজুরকে সবাই জানত ভালো মানুষ হিসেবে।

Mostafa.Hussain's picture

'আমিই আজ প্রতিটি ধর্ষিতার আর্তনাদ'

সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত আমার ভাতিজি রিমির মতো মুখ প্রীতি নামের মেয়েটির। প্রথম আলাপেই তুমি সম্বোধন। কথায় কথায় জানা হলো, কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হক এবং কবি আসাদ মান্নানের স্নেহধন্যাই শুধু নয়, অনেক আগে থেকে আমিও তাকে চিনি তার লেখার মাধ্যমে। রাজশাহীর মেয়ে, ওখানকারই এক কলেজের ছাত্রী। যাকে আমি প্রীতি, রিমি কিংবা হিমি বলে ডাকি। সেই মেয়েটিই বারুদের মতো বিস্ফোরিত হয়ে উঠল। টুকটুকে একটি শিশু, মাত্র তো বয়স ১১। সেও কি পুরুষের লালসার শিকার হতে পারে? টানা ৫৫ দিন পালাক্রমে ধর্ষণ করেই ওরা ক্ষান্ত হয়নি। ধর্মকেও ওরা বর্ম হিসেবে ব্যবহার করেছে অপরাধকে জায়েজ করার জন্য। অথচ ধর্ষকরা শুধু ধর্ষকই নয়, মাদক ব্যবসায়ীও। প্রীতির এই অভিব্যক্তি যেকোনো মানুষের ভিত নাড়িয়ে দিতে পারে।

Mostafa.Hussain's picture

শিক্ষা কার্যক্রম : ঘোড়ার আগে গাড়ি

নতুন শিক্ষানীতির আলোকে এইচএসসিতে বিষয় নির্ধারণ করা ও সেই অনুযায়ী শিক্ষার্থীদের স্বাভাবিক ভর্তি-প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। এর আগে স্কুল পর্যায়ে বছরের প্রথম দিনে বই বিতরণ হয়েছে বিনা মূল্যে। এর মধ্যে যুগের উপযোগী একটি শিক্ষানীতি প্রণয়ন ও বছরের প্রথম দিনে শিক্ষার্থীদের হাতে বই পৌঁছে দেওয়ার সাফল্য প্রায় সব মহলের প্রশংসা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। কিন্তু শিক্ষানীতি বাস্তবায়নের উদ্যোগের একটি পর্যায়ে বিষয় সংযোজন কার্যক্রমটি শিক্ষানীতি বাস্তবায়নের ধারাবাহিকতা রক্ষায় প্রতিবন্ধক হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে বলে মনে করতে হবে।

Syndicate content