Hasan.Ahmed.Chowdhury.Kiron's blog

Hasan.Ahmed.Chowdhury.Kiron's picture

সহাবস্থান তৈরি করুন- সমাধানে আসুন

বিএনপির দুঃসময়ের কাণ্ডারি, দলের মুখপাত্র সাবেক জনপ্রিয় ছাত্রনেতা, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিপি এবং বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এখন কারাগারে। এক অদ্ভুত অভিযান প্রক্রিয়ায় গত ২৯ ডিসেম্বর শুক্রবার রাতে রুহুল কবির রিজভীকে গ্রেফতার করা হয়। রিজভীকে যে প্রক্রিয়ায় বা যেভাবে গ্রেফতার করা হয় তাতে করে মনে হয়েছে, মধ্যরাতে জনপ্রিয় কোনো রাজনৈতিক নেতাকে নয়, নামকরা কোনো ডাকাত বা তস্করকে গ্রেফতার করতে গিয়েছিল গোয়েন্দা পুলিশ।

Hasan.Ahmed.Chowdhury.Kiron's picture

সংকট মোচনে চাই রাষ্ট্রপতির উদ্যোগ

সারা বিশ্বের রাজনৈতিক গগনে উত্থান-পতন কথাটি চিরাচরিত নিয়ম হিসেবে পরিগণিত। আজকে যারা ক্ষমতায় সমাসীন কাল হয়তো অধিষ্ঠিত হয় অন্যরা। গণতান্ত্রিক ব্যবস্থায় রাজনৈতিক ক্ষমতার পালাবদল ইতিহাসের চিরাচরিত নিয়ম অর্থাৎ পরিবর্তনের এই ঘটনা চিরন্তন। সেই বিবেচনায় আমাদের দেশের রাজনৈতিক ব্যবস্থার প্রেক্ষাপটও এই নিয়মের ব্যতিক্রম নয়। ইতিহাসের ধারাবাহিকতার দিকে দৃষ্টি নিক্ষেপ করলে এর প্রকৃষ্ট প্রমাণ পাওয়া যায়।

Hasan.Ahmed.Chowdhury.Kiron's picture

শিয়াল-কুমিরের গল্প ও রাজনৈতিক অস্থিরতা

ছোটবেলায় পড়া একটি গল্পের কথা মনে পড়ছে। গল্পের সারাংশ এরকম- এক নদীর ধারে একটা গ্রাম ছিল। গ্রামের জঙ্গলে বসবাস করত এক শিয়াল। পাশের নদীতেও ছিল একটি কুমির। নদীর কুমির ও জঙ্গলের শিয়ালের সঙ্গে সখ্য গড়ে ওঠে। শিয়াল ও কুমির মিলে নদীর পাশে একটা উর্বর জমির সন্ধান পেল এবং নিজেরা শলা-পরামর্শ করে ঠিক করল, তারা সেটা চাষাবাদ করবে। যে কথা সেই কাজ। তারা জমিটি চাষাবাদের যোগ্য করে প্রথমে ধান গাছ রোপণ করল। কিছু দিন পর যখন ধানের ফলন হলো তখন ভাগাভাগির প্রশ্নে শিয়াল কুমিরকে বলল, বন্ধু এক কাজ করা যায়, তাহলো আমি ধান গাছের উপরের অংশ নেই আর তুমি গোড়ার অংশ নাও। সে আরও বলল যে, উপরের অংশে তো তেমন কিছুই নেই তার চেয়ে গোড়ার অংশই ভালো। কুমির ধূর্ত শিয়ালের কথায় রাজি হলো। আর নিজে ধানগাছের নিচের অংশ মানে খড়কুটার অংশীদার হলো।

Hasan.Ahmed.Chowdhury.Kiron's picture

দোষারোপ নয় প্রয়োজন জাতীয় ঐক্যের

মানবসভ্যতার ক্রমবিকাশের ধারায় সর্বপ্রথম মানুষ যে ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করার জন্য নিরলস সংগ্রাম করেছে, তা হচ্ছে গণতন্ত্র। আমাদের দেশেও স্বাধীনতা সংগ্রামের মূল চেতনার অন্যতম ভিত্তি ছিল গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা। একাত্তর থেকে বর্তমান পর্যন্ত নানা চড়াই-উৎরাই পেরিয়ে প্রায় ৪২ বছর অতিক্রান্ত হয়েছে। কিন্তু এখনো আমরা একটা সুষ্ঠু ধারার রাজনৈতিক চর্চার মাধ্যমে কষ্টার্জিত গণতন্ত্রকে সঠিক পন্থায় বিকশিত করতে পারিনি।

Hasan.Ahmed.Chowdhury.Kiron's picture

তরুণ নেতৃত্বের হাতেই গড়ে উঠুক বাংলাদেশ

স্বাধীনতার ৪২ বছর অতিক্রান্ত হলেও দেশের রাজনীতিতে এখনো রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে আস্থার জায়গা তৈরি হয়নি। রাজনীতি যেন অনাস্থা, ভয়, শঙ্কার এক অন্ধকারময় জায়গা। রাজনীতিতে এককথায় জাতীয় ঐক্য বা ঐকমত্য বলে কিছু নেই। যারা ক্ষমতায় আসেন তারাই তাদের মতো করে, নেতৃত্ব দিয়ে দেশ চালান। প্রতিপক্ষ বা বিরুদ্ধপক্ষের মতামত খুব একটা আমলে নেন না। তাদের কথাও শোনেন না।

Hasan.Ahmed.Chowdhury.Kiron's picture

ঐশীর ঘটনা আমাদের সবার জন্য এক বড় সতর্ক বার্তা

আমরা নিশ্চিত করেই বলতে পারি পৃথিবীতে এখন সবচেয়ে দুঃখী মানুষ প্রিয় পিতা-মাতার খুনের দায়ে অভিযুক্ত মেয়ে ঐশীর নিকটতম আত্মীয় স্বজনেরা। যারা এই মেয়েটিকে কোলে পিঠে করে অপার আদর-স্নেহ দিয়ে মানুষ করেছেন। যাদের চোখের সামনে ঐশী তরতর করে বড় হয়েছে। সবারই নিশ্চিত প্রত্যাশা ছিল তাদের মেয়ে ঐশী একদিন আলো ছড়াবে তাদেরই চারপাশে। কিন্তু সেই ঐশী আজ পিতার সহকর্মীদের হাতে বন্দী, নিজ পিতা-মাতাকেই খুনের অভিযোগে। সত্যিই এ এক করুণ নির্মম ট্রাজিডি। সবার জীবনেই এ এক নতুন অভিজ্ঞতা।

Hasan.Ahmed.Chowdhury.Kiron's picture

রাজনীতিতে কতোটা পরিবর্তন আনতে পারবে জয়

বাংলাদেশের রাজনীতির গন্তব্য কোথায়-এটি এখন আসলেই রহস্যাবৃত। দিন যতই যাচ্ছে ততই রাজনীতি কেন জানি আরো ভীষণ রকম কুয়াশাচ্ছন্ন এবং বিভীষিকাময় হয়ে উঠছে। রাজনীতির মাঠ-ময়দান ঘিরে তৈরি হচ্ছে নতুন নতুন উপলক্ষ এবং ঘটনাপ্রবাহ। বিশেষ করে সামনে জাতীয় নির্বাচনের প্রেক্ষাপটে রাজনীতির গতিপথ আলোর চেয়ে অন্ধকারের দিকেই ধাবিত হচ্ছে। আপাতত জনগণের সামনে স্বস্তিময় কোনো সংবাদ নেই। স্পষ্টতই দেখতে পাচ্ছি রাজনৈতিক বিশ্লেষকগণ যা বলছেন বা যা ভাবছেন ঠিক পরক্ষণেই তার উল্টোটাই ঘটছে। তবে সবকিছু দেখে-শুনে মনে হচ্ছে রাজনীতির সামনের দিনগুলো আরো জটিল ও কূটিল এক সন্ধিক্ষণের দিকেই এগুচ্ছে।

Hasan.Ahmed.Chowdhury.Kiron's picture

রাজনৈতিক সমঝোতাই বাঁচাতে পারে বিপদাপন্ন দেশকে

জাতীয় নির্বাচনের সময় কেবলই ঘনিয়ে আসছে। কিন্তু সাধারণ জনগণ এখনো এক মহারহস্যের মাঝেই আছে নির্বাচন প্রশ্নে। নির্বাচন কী সব দলের অংশগ্রহণে হবে, নাকি আওয়ামী লীগ এবং তার মিত্ররাই করবে, নাকি তৃতীয় পক্ষের আবির্ভাব ঘটবে এ নিয়ে এখন চারিদিকে নিরন্তর প্রশ্ন। সংশয়েরও কোনো শেষ নেই। নানা মুখে নানান কথাও শোনা যাচ্ছে।

Hasan.Ahmed.Chowdhury.Kiron's picture

হারকিউলিসের সেই গল্প ও দুঃশাসন

গ্রিক মিথলজি যারা পড়েছেন তারা নিশ্চয় এই গল্পটা জানেন। দেবতা জিউসের একনিষ্ঠ অনুগত দানবীয় ও দৈত্যসদৃশ মহাশক্তিধর 'হারকিউলিস' একদিন পথ দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিলেন। যাওয়ার প্রাক্কালে পথিমধ্যে এবং পথের আশপাশে সব প্রাণী আর গাছপালা অর্থাৎ যা কিছু ছিল তারা ভয়ে যে যার মতো সরে গিয়ে হারকিউলিসের যাওয়ার পথ সুগম করে দিচ্ছিল। হারকিউলিস নির্বিঘ্নে ও আনন্দের সঙ্গে পথ দিয়ে হাঁটছিলেন তার গন্তব্যের দিকে। কিছু দূর যাওয়ার পর হঠাৎ তিনি দেখতে পেলেন ঠিক পথের মাঝখানে একটা বরইয়ের (কুল) আটিসদৃশ বিচি পড়ে আছে। এতে রাগে ও ক্ষোভে তিনি মনে মনে বললেন, 'আমার আসার সংবাদ শুনে পথের ধূলিকণা পর্যন্ত ভয়ে সরে যাচ্ছে আর সামান্য ক্ষুদ্র বিচিটি সরে না গিয়ে দিব্যি পড়ে আছে।

Hasan.Ahmed.Chowdhury.Kiron's picture

সিটি নির্বাচন : দুঃশাসনের বিরুদ্ধে রায়

রাজনীতিতে যে জনগণের রায়ই মূল শক্তি, তা যেন আবারও প্রমাণিত হলো। দেশের আপামর জনগণ দেখতে পেল জনগণের রায়ের কাছে সব কিছুই তুচ্ছ, ম্রিয়মাণ। জনগণ জেগে উঠলে, মতপ্রকাশের সুযোগ পেলে তাকে কোনোভাবেই প্রতিরোধ করা যায় না। কোনোভাবে দমানোও যায় না। জনগণের মতপ্রকাশের শক্তি দুর্নিবার, দুর্বার। সদ্যসমাপ্ত দেশের চারটি সিটি করপোরেশন নির্বাচনে তাই রাষ্ট্রবিজ্ঞানের কথাই সত্য হলো। রাষ্ট্রবিজ্ঞানের যারা জনক তারা বহুবার বলে গেছেন, 'জনগণই সকল ক্ষমতার উৎস। জনগণের মতকে পায়ের নিচে পিষ্ট করতে গেলে তোমাকেই পিষ্ট হতে হবে।' ক্ষমতার দম্ভে অনেকেই রাষ্ট্রবিজ্ঞানের তত্ত্ব বা সূত্র মানতে চান না। তারা মনে করেন, ক্ষমতা চিরস্থায়ী। আর তাই নিজের ইচ্ছেমতো রাষ্ট্রযন্ত্র পরিচালনা করতে চান।

Syndicate content