ভানু ভাস্কর's picture

বঙ্গবন্ধুর প্রতি সত্যাচার

দীঘির জলে একটি পদ্ম ফোঁটা,
আর টলমল জল।
আর যে কিছুই নেই,
এই পদ্মের ইতিহাস জানে যে-ই,
সে-ই তো দেশপ্রেমিক।
দাম্ভিকেরা জানবে না সে গান,
জলপদ্মের কেমনতর দান?
কেমন করে একটি কুঁড়ি উচ্চশিরে
সবার কথা কয়!

২৬ মার্চ ও জামায়াতের যুদ্ধাপরাধ

২৬ মার্চ ৭১ থেকে জামায়াত আইনের চোখে বাংলাদেশে অবৈধ। ১৬ ডিসেম্বর তৎকালিন রেসকোর্স ময়দানে পাকিস্তানি দখলদার বাহিনী যখন নিঃশর্ত আত্মসমর্পন করল তখন ঐ হানাদার বাহিনীর সাথে তাদের সব ধরনের সহযোগী বাহিনীও নিঃশর্ত আত্মসমর্পন করেছে, এর প্রমাণ তারা দিয়েছে আত্মসমর্পন দলিলে সই দিয়ে। ১৬ ডিসেম্বর সই দেয়ার মাধ্যমে বাস্তবে প্রমাণ হয়ে গেল ২৬ মার্চ থেকে প্রায় নয় মাস জুড়ে হানাদারদের সাথে রাজাকার আলবদররা যে অন্যায় অপতৎপরতা চালিয়েছে যা যুদ্ধাপরাধ, তা সম্পূর্ণরূপে বাংলার মাটিতে অবৈধ ছিল।

Shafiul Azam Shipon's picture

‘মুক্তিযোদ্ধা ফিরোজ আহমেদ’

প্রত্যহ চলের পথে দেখা হতো,হতো কুশল বিনিময়,সর্বদা মৃদু হাসি,অত্যান্ত বিনয়ী একজন মানুষ ছিলেন যিনি, তাঁকে আর কোনোদিন দেখতে পাবোনা,কথা হবে না কখনোই,মৃত্যু মানেই এমন নির্মম সত্যের মুখোমুখি দাড়াতে হয় আমাদের।
মৃত্যু মানুষের দেহটাকে বিলুপ্ত করে দেয় ঠিকই তবে তার কাজগুলো তাঁকে স্মরনীয় করে রাখে,জীবিতদের মাঝে।জীবতদের সমাজে,রাষ্ট্রে,সমগ্র বিশ্বে।আজকের কৃতকর্মগুলো কাল হয়ে যায় স্মৃতি এবং কাল পেরলে হয় তা ইতিহাস।

আন্তর্জাতিক গণহত্যা দিবস পালনের আহ্বান

দুনিয়াজুড়ে মানুষের সংগ্রাম তীব্র থেকে তীব্রতর হচ্ছে- গণহত্যা বন্ধ করো। আরেকটি দাবিও জোরেশোরে উঠেছে, গণহত্যাকারী মানবতাবিরোধীদের বিচার করো।

আজ ২৫ মার্চ আন্তর্জাতিক গণহত্যা দিবস পালনের দাবির প্রতি একাত্মতা প্রকাশের জন্য সারাবিশ্বের সকল শান্তিকামী মানুষের কাছে আহ্বান।

syed shah salim ahmed's picture

ব্রিটেন ও সৌদি আরবের দুটি ভিন্ন খবর

সৌদি আরবের ১০ জন ফ্যাশন ক্লথ ডিজাইনাররা একত্রিত হয়ে ফ্যাশনের উপর এক একাডেমী খোলার কথা জানালেন সৌদি গ্যাজেটকে। তারা বলছেন, সৌদি আরব প্রতি বছর ১০ বিলিয়ন সৌদি রিয়াল খরচ করে তাকে বাইরে থেকে ডিজাইনার ক্লথ আমদানির জন্যে। অথচ নিজ দেশের ডিজাইনাররা একাডেমী খোলার মধ্য দিয়ে যথাযথ ট্রেনিং এর মাধ্যমে ফ্যাশন ডিজাইনের আধুনিক মান সম্মত কাপড় নিজ দেশেই প্রস্তুত করতে সক্ষম, দেশের এই বিলিয়ন ডলার রিয়ালেরও সাশ্রয়ী করতে সক্ষম। আর এরকম লক্ষ নিয়ে ডিজাইনের উপর প্রশিক্ষিত ১০ জন নারী মিলে একটি একাডেমী খুলে সেখান থেকে নিজ দেশে ম্যানুফাকচারিং করারও ঘোষণা করেছেন।

syed shah salim ahmed's picture

ইস্যু- ইসলামিক শরীয়া ল: এমপিরা পার্লামেন্ট ও হোম সিলেক্ট কমিটির যৌথ ইনকোয়ারির আহবান জানালেন (দ্বিতীয় পর্ব)

ইসলামিক শরীয়া ল বিষয়ে ব্রিটিশ ল সোসাইটির সলিসিটর্সদের জন্য গাইড লাইন ইস্যুর ঘোষণা দেয়ার ১২ ঘন্টার ব্যবধানে ব্রিটিশ পার্লামেন্টের সদস্য হোডার্সফিল্ডের লেবার দলীয় এমপি বারী শ্যেরম্যান পার্লামেন্ট ও হোম এফেয়ার্স সিলেক্ট কমিটির যৌথ ইনিকোয়ারির আহ্বান জানিয়েছেন। পার্লামেন্ট মেম্বাররা বলছেন, ল-সোসাইটির শরীয়া আইনের প্রতি লিগ্যাল ষ্ট্যাম্প ব্যাপক ভাবে প্রচারে বরং প্রচলিত আইনের সাথে বিশেষ করে নারী পুরুষের ইকুয়াল শেয়ার রাইটের ক্ষেত্রে ইলিজিটিমেইট হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন। পার্লামেন্ট মেম্বাররা বলছেন শরীয়া আইনের প্রতি ব্রিটিশ ল সোসাইটির সমর্থন ওয়েক-আপ-কল মাত্র, যা তাদের মতে সোসাইটি এই শরীয়া আইন অনুমোদন প্রমোট করেনা।

syed shah salim ahmed's picture

ইসলামিক শরীয়া ল ব্রিটিশ আইনে প্রথমবারের মতো সলিসিটর্সদের দ্বারা গাইড লাইন পেতে যাচ্ছে (প্রথম পর্ব)

ব্রিটেনে প্রথমবারের মতো ইসলামিক শরীয়া ল ব্রিটিশ আইনের দ্বারা সলিসিটর্সদের জন্য গাইড লাইন পেতে যাচ্ছে বলে ডেইলি টেলিগ্রাফ আজকে এক নিবন্ধে জানিয়েছে।

গ্রাউন্ড ব্রেকিং গাইডেন্সে হাই ষ্ট্রীট সলিসিটির্স ফার্ম এখন থেকে হয়তো ইসলামিক শরীয়া আইনে উইল লিখতে পারবেন, যে শরীয়া আইনে নারী পুরুষের সমান ইনহ্যারিটেন্স অধিকার স্বীকার করেনা-আন্ডার দিস গাইডেন্স, এই ডকুম্যান্টস ব্রিটিশ আইনে স্বীকৃত হতে যাচ্ছে বলে টেলিগ্রাফ মন্তব্য করেছে।

Md. Galib Mehdi Khan's picture

আর কোন মা'কে যেন হন্তারক হয়ে উঠতে না হয়।

একজন খাদিজা বেগমের ফুসে ওঠা। একটি হাঁসুয়া রক্তে রঞ্জিত হওয়া এবং একজন মফিজুর রহমান মফির ভবলীলা সাঙ্গ হওয়ার মধ্য থেকে আমাদের সমাজের যে কুৎসিত রূপটি ফুটে উঠেছে সমাজপতিদের চোখে কি তা ধরা পড়েছে? মফির দুর্বৃত্ত পনা খাদিজা বেগমকে একদিকে যেমন আক্রমনাত্নক করে তুলেছিল ঠিক তেমনি প্রশাসনের অসহযোগিতা, স্থানীয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের উদাসীনতা তাকে ক্রমশ আস্থাহীন করে তুলেছিল। যা রূপ নিয়েছিল আক্রোশে। যে আক্রোশ সে মিটিয়েছিল মফির উপরে হাঁসুয়া চালিয়ে।

Mchowdhury's picture

হটাত কবিতাময় বন্দর

river.jpg
কবিতা কি নারীর মত?
মস্তিষ্কের গভীরে
অস্পষ্ট আলো ছায়ায় প্রস্ফুটিত সুন্দরের
নাস্তিক এবং আস্তিক অবাধ আসা যাওয়া!

ভানু ভাস্কর's picture

A state of being acknowledged

Captivated a strange poet, it is dark all around,
Having no eyes is his ability, to see you unbound.
Subnormal, how can he imbibe what is written?
But is perceived, once in mind, reading you profound.

অন্ধকারে বদ্ধ এ এক অবাক অন্ধ কবি,
চোখ না থেকেই দেখতে পারে তোমার মুখের ছবি।
এই মূর্খটা পড়তে না পারে কাগজে পত্তরে,
কিন্তু পড়েছে মনের কাগজে রক্তের অক্ষরে।

Syndicate content